শান্তিনিকেতনের জ্ঞানপূর্ণ কথাবার্তা গুলি


আচ্ছা প্রনম্য রবি ঠাকুর মহাশয় তেনার ইস্কুলের এর ছাত্রছাত্রী দের ঠিক কি বলতে চেয়েছিলেন বলেন তো ? আমিও তেনার ইস্কুলেরই ছাত্র ছিলাম, বেশ হেঁসে খেলে দিন কাটিয়েছি, মানতেই হবে। আজকের যুগের মত বই কে সই বানিয়ে চোখের ফোকাস টাকে ২ ফুটের মধ্যে সীমাবদ্ধ করিনি এক্কেবারে। বিশেষ জ্ঞানগম্মি আমার ছিলনা অবশ্যই, এখন ও নেই, তবে শেখার উপাদান ছিল প্রচুর। মজার কথা এই যে শেখার উপাদান গুলো এখনও বেশ আমার চারপাশে অনায়াসে ঘুরে ফিরে বেড়াচ্ছে।

কেসটা গুবলেট হতে সুরু করেছিল ৮ই পৌষ সকালগুলো থেকে। ইস্কুলের কনভোকেশনে ফি বছর প্রধান বক্তার ‘রবীন্দ্রনাথ এর শিক্ষা চিন্তা’ এর ওপর জ্ঞানগর্ভ বকতি্তে শুনতে শুনতে, সেই ক্লাস ২ থেকে শুরু, ৫২ বছর ধরে গতবছর ও শুনেছিলাম। তার পর মনে হল ধুত্তেরি, এত কথা তো শোনা যাবেনা। ব্যাপারটাকে সহজ সরল করতে হবে, প্রায় এককথায় প্রকাশ এর মত, রবি ঠাকুর ঠিক কি বলতে ছেয়েছিলেন তেনার ইস্কুলের ছাত্রদের?
“ভাই সকল বাঁচতে শেখ”, এই তো কি সুন্দর পরিস্কার কথা, ইস্কুলের ছেলে মেয়েদের বুঝতেও কোন অসুবিধা নেই, গণ্ডা গণ্ডা শব্দ গিলে বদহজম এর কোন সম্ভাবনা নেই, আমি তো আমার মতো করে মেনেই নিলাম রবি ঠাকুর এটাই বলতে চেয়েছিলেন। কিন্তু মুশকিল হল এক কথায় ব্যাপারটা বুঝলাম অনেক দেরিতে। আসলে ঠিক সহজে বোঝাবার মত সহজ মানুষজন বেশ অনেককাল আগে থেকেই শান্তিনিকেতনে দুস্প্রাপ্য। আমরাও রবি ঠাকুরের ওপর বেশ কয়েক পাতা ভর্তি উদ্ধৃতি মেরে টেরে রচনা না লিখলে ওটা পাতে দেবার যোগ্য হতোনা। এক লাইন এর রচনা সাহিত্যসভায়? নো চান্স।


“ভাইবোনেরা বাঁচতে শেখ”, কি সুন্দর কথা, জলের মত বোধগম্য। কিন্তু অই শিখতে শিখতে বাঁচতে ভুলে যাওয়াটাই এখন রেওআজ। শান্তিনিকেতানের প্রায় সব লোকজনই বাঁচতে ভুলে গিয়ে কি একটা শিখতে ও শেখাতে চাইছে নিজেরাও জানেনা, ছাত্রদের অবস্থাও ও রকমই। আমরাও শান্তিনিকেতনের চারপাশে খুব একটা বেঁচে নেই। মানে বাঁচতে ভুলে গেছি আরকি!বাঁচার উপাদান গুলো কিন্তু দিব্যি চারপাশে ঘুরে বেড়াচ্ছে।
আর একটা সহজলভ্য উপায় অবশ্য আছে। কে অত ভাবনাচিন্তা করে, বুঝতে টুঝতে চায়, তার চেয়ে সময়ের ন্যাজ ধরে মারো দৌড়, এক্কেবারে ৬০ ৬৫ তে দম ছেড়ে কটা দিন দাঁত কেলিয়ে কাটিয়ে দিলেই তো খেল খতম।
কিন্তু কোথাও একটা কথা তখন ও ঘুরপাক খাবে “ভাই বোনেরা বাঁচতে শেখ”। সত্যিই, আর কিছুই তো শেখার নেই।
শুভাশিস


Shubhashis

This entry was posted in Bangla Section. Bookmark the permalink.

Leave a Reply